Wednesday, 28 June, 2017

Please use Google Chrome or Mozilla Firefox for best view of www.NYBangla.com

About admin

Related Posts

4 Comments

  1. 1

    এক বাংগালী মুক্তিযোদ্ধা, ণিউ ইয়র্ক থেকে

    ফারুক ওয়াহিদ ভাই,

    নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবসের সমাবেশ কিন্তু একজন মুক্তিযোদ্ধাকেও সেখানে আমন্ত্রন জানানো হয়নি তাই আমার এই মন্তব্য। অন্যায় কিছু বলেছি কি?
    “এক বাংগালী মুক্তিযোদ্ধা, ণিউ ইয়র্ক থেকে

    নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবসের সমাবেশ – কিন্তু সেখানে মুক্তিযোদ্ধারা অনুপস্থিত কেন? তারা কি জানেন এই স্বাধীনতা দিবস হলো বংগবন্ধুর ডাক এবং মুক্তিযোদ্ধাদের মরনপন যুদ্ধের ফসল। যদি মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে এই বাংলাদেশ জন্ম না নিত তবে কি আপনাদের কাউকে এই নিউ ইয়র্কে পাওয়া যেত? আমি আমেরিকান এম্বাসী রাওয়াল পিন্ডিতে গিয়েছিলাম বেশ কয়েকবার এবং নিজের চোখে দেখেছি পূর্ব পাকিস্তান থেকে কোনো বাংগালীর পাস্পোর্ট ঢাকা্র মার্কিন কন্সুলার অফিস থেকে অনুমোদিত হয়ে রাওয়াল পিন্ডির মার্কিন দূতাবাসে গেলেও তা স্থানীয় পাকিস্তানী কর্মচারী/কর্ম কর্তারা নানা অজুহাতে সেই ভিসা দরখাস্ত ও পাস্পোর্ট নাকচ করে দিত। তারা ম্ননে করতো পুর্ব পাকিস্তানের লোকেরা অশিক্ষিত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গেলে তারা পাকিস্তানের জন্য সনামের পরিবর্তে দুর্নাম বয়ে আনবে। আর ৭১ সনে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছিল বলে আমরা আজ এই মার্কিন মুলুকে এবং পাকিস্তানীদের চেয়ে অনেক ভাল অবস্থানেই আছি। সুতরাং আমার দেশের স্বাধীনতা দিবসে সেই মুক্তিযোদ্ধাদেরকে একটু সন্মান দেখাতে এখানকার আওয়ামী লীগ নেতাদের এত কার্পন্য কেন? তবে কি এই বিষটাও বংগবন্ধুর কন্যা শেখা হাসিনার কাছ উত্থাপন করতে হবে? অনেকেই বলে থাকেন এখানকার আওয়ামী লীগের অনেক নেতাদের শিকড় এখনও পাকিস্তানে এবং তাদের পূর্বসুরীরা ছিল মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে। সত্য বলে মনে করব কি?”

    Reply
    1. 1.1

      Farouk Waheed

      সাঈদ ভাই,
      ‘নিউইয়র্ক মহানগর আওয়ামী লীগের স্বাধীনতা দিবসের সমাবেশ’- সেটাতো মুক্তিযোদ্ধাদের সমাবেশ না- তাই আপনাকে কেন বলবে? আবার বলছি ‘স্বাধীনতা দিবসের সমাবেশ’ মুক্তিযোদ্ধা কেন আসবে? রবীন্দ্রনাথের অপমানিত কবিতাটি পড়ে নিজেকে নিয়ন্ত্রিত করুন- আমি সবসময় তাই-ই করি।

      Reply
      1. 1.1.1

        সাঈদ, মুক্তিযোদ্ধা

        ওদেরতো জানা উচিত বাংলাদেশটাইতো বংবন্ধুর ডাক এবং মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগের ফসল। যারা এই দিনকে নিয়ে মাতামাতি করছে তাদের কতজন ছিল যুদ্ধ ক্ষেত্রে?

        Reply
  2. 2

    মুক্তিযোদ্ধা, ণিউ ইয়র্ক থেকে

    এই দিনকে স্বচক্ষে দেখতে পাইনি কারন ছিলাম তদানিন্তন পশ্চিম পাকিস্তানে, পাকিস্তান এয়ার ফোর্সের একজন বিমান সেনা হিসেবে চাকুরীরত। জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে নানা সত্য মিথ্যা কারন দেখিয়ে ছুটি নিয়ে করাচী গিয়ে তদানিন্তন পি আই এর এক বাংগালী কর্মকর্তার সাহায্য নিয়ে একটা টিকেট কিনে চলে এসেছিলাম বাংলায়। তার আগের উত্তাল বাংলার যাবতীয় খবরাদি পেতাম বিবিসির মাধ্যমে। শ্রীলংকা হয়ে ঢাকায় এসে মামার বাসায় মহাখালীতে। সেখানে গিয়ে মামার কাছে জানতে পারলাম আমার বড় ভাই ভারতে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ট্রেনিং নেয়ার জন্য। মামার বাস্য দুদিন থেকে লঞ্চযোগে বাড়ীতে এবং ১ সপ্তাহ বাড়ীতে থেকে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা দল, মাদারীপুরের খলিল বাহিনীর সাথে যোগ দেই। অনেক অপারেশনে যোগ দিয়েছিলাম এবং তারপর আগষ্টের শেষ দিকে নাম তালিকাভুক্ত করার জন্য ভারতের মেলাঘরে গমন। কয়েকদিন থেকে, নাম তালিকাভুক্ত করেই আবার ইন্ডাকশন নিয়ে দেশে চলে আসি। আবার কিছু অপারেশন এবং তার পর ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহেই আমাদের মাদারীপুরের পাক আর্মি আমাদের কাছে আত্মসমর্পন করে এবং মাদারীপুর স্বাধীন হয়ে যায় ডিসেম্বরের ৬ তারিখ। ঐ সময়েই আমাদের এলাকা স্বাধীন।
    তাই বলছিলাম ওয়াহিদ ভাইয়ের দেখা দৃশ্যাবলি দেখতে পাইনি। আজ তার লেখা পড়ে অনেক কিছুই জেনে নিলাম, সঞ্চয় করলাম অনেক জ্ঞান এবং সেই জ্ঞানই আমার ঝুলিতে রেখে দিলাম এবং সেই প্রেক্ষাপটেই ভবিষ্যতে কিছু একটা লেখার আশা করি। আমার জ্ঞানের ঝুলিতে অনেক জানা অজানা তত্ত্ব এবং তথ্য সংযোজনের জন্য ফারুক ওয়াহিদ ভাইকে অনেক অনেক ধন্যবা।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Contact: Abid Reza, Phone & Text : (518) 217-8499, Email: nybangla@gmail.com (Web Publishing from New York since March 26, 2004)